জানেন কি ব্লাড সুগার থেকে ক্যান্সার প্রতিরোধে আম খাওয়া কেন ভাল?

সম্প্রতি প্রচুর রসালো আম আসতে শুরু করেছে বাজারে। কিন্তু অনেকেই দেখা যায়, সুগার বেড়ে যাওয়ার ভয়ে বা মোটা হওয়ার আতঙ্কে আম খেতে চান না। তাই আর নয় ভয়। আম খান নিশ্চিন্তে। কারণ আমে রয়েছে প্রচুর গুণাগুণ। ব্লাড সুগার থেকে শুরু করে ক্যান্সার প্রতিরোধে পাকা আমের কোনো জবাব নেই।

আমের পুষ্টিগুণ ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা :

* পাকা আমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন A, ভিটামিন C, ভিটামিন B -6, খনিজ লবণ, পটাসিয়াম, কপার লোহা, এমাইনো অ্যাসিড, বিটা ক্যারোটিন ও আন্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। এছাড়াও পাঁকা আম প্রোটিন, ম্যালিক অ্যাসিড, টারটারিক অ্যাসিড ও সাইট্রিক অ্যাসিড ইত্যাদিতে ভরপুর।

* আমে বিদ্যমান ক্যারোটিন ও ভিটামিন A চোখের দৃষ্টি বাড়াতে সহায়তা করে এবং রাতকানা রোগের হাত থেকে চোখকে রক্ষা করে থাকে।

* আমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন B কমপ্লেক্স রয়েছে যা শরীরের স্নায়ুগুলোতে অক্সিজেন সরবরাহ করে শরীরকে সতেজ রাখে। এর ফলে ভালো ঘুম হয়।

* আমে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন E ও সেলেনিয়াম যা হার্টের সমস্যা প্রতিরোধে অতুলনীয়।

* এমনকি আম খেলে স্তন ক্যান্সার, লিউকেমিয়া, কোলন ক্যান্সার এবং প্রস্টেট ক্যান্সারও প্রতিরোধ হয়ে থাকে, কারণ আমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে এন্টি অক্সিডেন্ট।

* আমে প্রচুর খনিজ লবণ থাকায় যারা আম বেশি খেয়ে থাকে তাদের দাঁত, নখ ও চুল ভালো থাকে।

* নিয়মিত আম খেলে শরীরের মেদ ঝরে যায় ও ওজন কমে এবং দেহের ক্ষয়রোধ হয়।

* আমে বিদ্যমান রয়েছে প্রচুর আয়রন যা শরীরের রক্তস্বল্পতা দূর করে ও রক্ত পরিষ্কার রাখে।

* আমে বিদ্যমান ভিটামিন B -6 কিডনিতে পাথর হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমিয়ে দেয়।

* এমনকি শরীরের শর্করার মাত্রা ঠিক রাখতে পরিমিত পরিমাণে আম খাওয়া ভাল। তাই ভয় ছেড়ে নিশ্চিন্তে আম খাওয়া শুরু করুন। তবে যাদের ডায়াবেটিস আছে তাদের অতিরিক্ত আম খাওয়া ঠিক নয় কিন্তু পরিমিতভাবে খেলে অনেক উপকার পাওয়া যাবে।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: