দুঃসাহসিক অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত

কঙ্গনা রানাউত আমার ভীষণ পছন্দের একজন অভিনেত্রী। তাঁর অভিনয় যেমন ভালো লাগে তেমনি ব্যক্তিজীবনে তাঁর সাহসিকতা আমাকে রীতিমতো মুগ্ধ করেছে। সাহসিকতা বললে ভুল হবে, কঙ্গনা যেরকম কথা বলেন তা দুঃসাহসিকতার পর্যায়েই পড়ে।

 

বলিউডে কাজ করে কেউ তিন খান কিংবা করন জোহরকে কোনোভাবেই চটাতে চান না। অথচ কঙ্গনা করন জোহরের মুখের উপর তাকে বলে দিলেন “ফিল্ম মাফিয়া”। কোন খানের সাথে কাজ করতে আগ্রহী? এই প্রশ্নের উত্তরে কোনো ভনিতা না করে সরাসরি বলে দিলেন কারো সাথে নয়। সেই সাথে আরো বললেন, “আমি মনে করি না ছবি হিট করাতে কোনো খানের সাথে অভিনয়ের প্রয়োজন আছে !”

উল্লেখ্য,সালমান খানের ছবিতে কঙ্গনা দুইবার অভিনয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। কিক এবং বাজরাঙ্গি ভাইজানে কঙ্গনার অভিনয়ের প্রস্তাব ছিল। কিন্তু তিনি ফিরিয়ে দিয়েছিলেন কারণ একটাই, খানদের অধিকাংশ ছবিতেই অভিনেত্রীদের গুরুত্ব খুবই কম থাকে। আর কঙ্গনা সেটা পছন্দ করেন না। তিনি লিড রোলেই কাজ করতে বেশি আগ্রহী।

‘রেঙ্গুন’ মুভির প্রমোশনে তিনি সাইফ আলী খানের সাথে বসে ছিলেন। সে সময় উপস্থাপক তাঁর  কাছে জানতে চাইলেন সাইফ আলী খান মানুষ হিসেবে কেমন? কঙ্গনা তখন বললেন –

 

“তিনি পারিবারিক ঐতিহ্যে প্রাপ্ত স্টারডাম থেকে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছেন। সবসময় ‘আমি স্টার’ এরকম একটা ভাব দেখান!” আমি শুনে জিভে কামড় দিয়েছি। বাপরে বাপ। মেয়েতো নয় যেন অগ্নিগোলক !:)

বলিউডে কাজ করে এরকম কথা বলা কোনো অভিনেতা /অভিনেত্রীর পক্ষেও হয়তো সম্ভব নয়। এটা ক্যারিয়ারের জন্য আগুন নিয়ে খেলার মতোই ভয়ানক হতে পারে। কিন্তু কঙ্গনা রানাউত ব্যতিক্রম। তিনি যেন অগ্নি রাজ্যের দুঃসাহসী রাজকন্যা। কথাবার্তায় আগুন ঝরাতেই তাঁর যতো সুখ।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: