বডি ফর্সা কিন্তু আন্ডার আর্ম কালো এর সমাধান কি?

আন্ডার আর্ম কালো হওয়ার কারণ :

* অনেক সময় আমরা সেভিং ক্রিম বা ভিট জাতীয় প্রোডাক্ট ব্যবহার করে থাকি যা ত্বককে পুড়িয়ে কালচে করে ফেলে, একারণে এই সমস্যাটি হতে পারে।

* সবসময় ঢাকা থাকে বলে আলো বাতাসের অভাবে এই অংশটির কোষ মরে গিয়ে কালো দাগ হতে পারে।

* বংশগত হরমোনের কারণে এই সমস্যাটি  হতে পারে।

* অতিরিক্ত ডিওডোরেন্ট ব্যবহারের ফলে হতে পারে এই সমস্যা।

* ত্বকের সাথে ঘর্ষণের ফলেও হতে পারে এই কালো দাগ।

* এমনকি বিশেষ করে যাদের ডায়াবেটিস আছে তাদের এই সমস্যাটি অনেক বেশি হয়, কারণ শরীরের ইনসুলিন এই কালো দাগ তৈরি করতে সহায়ক।

কালো দাগ দূর করার উপায় :

* হেয়ার রিমুভার ক্রিম এর পরিবর্তে যদি আপনি চিনি, লেবু ইত্যাদি প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে ওয়াক্সিং করেন তাহলে এই দাগ সহজেই চলে যাবে এবং স্কিন অনেক ব্রাইট হবে।

* আরেকটি প্রাকৃতিক উপায় হলো লেবুর রস ঘষা। লেবুর রস বগলের নিচের কালো দাগ দূর করায় খুবই সহায়ক।

* একটি মাস্ক ব্যবহার করে এই সমস্যাটি দূর করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে লাগবে ২ চা চামচ লেবুর রস, ২/১ চা চামচ হলুদের গুঁড়া ও ২/১ চা চামচ ময়দার গুঁড়া একসাথে মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে কালো জায়গায় মেখে ১৫/২০ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

* আলু এবং শসার রসও কালো দাগ দূর করে। আলু ও শসার রস আন্ডার আর্মে মেখে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

* এই সমস্যা সমাধানে জাফরানের গুঁড়াও কার্যকর ভূমিকা রাখে। জাফরানের গুঁড়ার সাথে ২ টেবিল চামচ দুধ মিশিয়ে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে আন্ডার আর্মে ব্যবহার করুন এবং সকালে উঠে ধুয়ে ফেলুন। এটি প্রাকৃতিকভাবে কালো দাগ দূর করতে সহায়ক।

* প্রয়োজনে ডিওডোরেন্ট ব্যবহার না করে প্রাকৃতিক উপাদান যেমন – বেকিং সোডা, অ্যান্টি ফাংগাল পাউডার এবং ফিটকিরি ব্যবহার করতে পারেন। কেননা ডিওডোরেন্ট স্কিনে বিভিন্ন ফাংগাস তৈরির মাধ্যমে আন্ডার আর্ম কালো করে ফেলে।

* গোলাপ জল বা চন্দনের গুঁড়া ব্যবহার করতে পারেন কারণ এটি ত্বকের আদ্রতা বজায় রেখে ত্বককে কালচে হওয়া থেকে রক্ষা করে।

আন্ডার আর্ম ব্রাইটেনিংয়ের জন্য অনেকে বিভিন্ন ক্রিম বা লোশন ব্যবহার করে থাকেন। এতে সাময়িকভাবে কালো দাগ কিছুটা দূর হলেও পার্শপ্রতিক্রিয়ার  সম্ভাবনা থাকে। তাই ঘরোয়াভাবেই এই সমস্যার সমাধান করা সম্ভব। চলুন জেনে নেই আন্ডার আর্মের কালো দাগ দূর করার আরো কিছু দারুন উপায়।

১। আলু :

আলুতে আছে এসিডিক উপাদান যা প্রাকৃতিক ব্লিচিং এর কাজ করে। আলুর রস আন্ডার আর্মের কালো অংশে ম্যাসাজ করে ১৫/ ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দ্রুত ও কার্যকর ফল পেতে দিনে দুইবার ব্যবহার করুন।

২। বেকিং সোডা :

বগলের কালো দাগ দূর করতে বেকিং সোডা ভীষণ কার্যকরী। বেকিং সোডার সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে বগলের নিচের ত্বকে ভালো করে ঘষে ১৫ মিনিট রেখে দিন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে কমপক্ষে ৪ বার এই মিশ্রণটি ব্যবহার করলে ধীরে ধীরে আন্ডার আর্মের কালো দাগ দূর হয়ে যাবে।

৩। স্ক্র্যাব করা :

মরা চামড়ার কারণে অনেক সময় বগলে বাজে কালো দাগ পড়ে যায়। এই মরা চামড়া পরিষ্কার করার জন্য নিয়মিত স্ক্র্যাব করা জরুরি। ১/৩ গোলাপ জল, ১/২ চা চামচ লবণ ও সামান্য জনসন বেবি পাউডার একসাথে মিক্সড করে বগলের নিচে মিশ্রণটি দিয়ে কিছুক্ষণ ঘষে ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এটি ব্যবহার করুন। তাছাড়া লেবুর খোসায় চিনি লাগিয়ে এটি বগলের নিচের  কালো অংশে ভালো করে ঘষুন। এটি মরা কোষ দূর করে দ্রুত কালো দাগ দূর করতে সহায়তা করে।

৪। শসা :

শসাও আলুর মতো আন্ডার আর্মের দাগ দূর করতে বেশ সহায়ক। পাতলা করে শসা কেটে নিয়ে টুকরোটি বগলের নিচের অংশে ভালো করে কিছুক্ষণ ঘষুন। এটি সপ্তাহে দুইবার ব্যবহার করুন। এছাড়া শসার রসের সাথে লেবুর রস ও হলুদের গুঁড়া মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে আন্ডার আর্মে লাগিয়ে ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি প্রতিদিন একবার ব্যবহার করলে আন্ডার আর্মের দাগ চলে যাবে।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: