মেকআপ লং লাস্টিং করার কিছু কৌশল

বিয়ে বা পার্টির কথা শুনলে সব মেয়েরই সর্বপ্রথম যে কথাটি মনে পরে তা হচ্ছে মেকআপ।  বেশিরভাগ মেয়েরাই যেকোনো পার্টিতেই নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলতে চায় মেকআপ এর মাধ্যমে।  কিন্তু অধিকাংশ মেয়েদের ক্ষেত্রেই দেখা যায় মেকআপ করার পর সেটা ঠিকভাবে বসে না বা লং লাস্টিং হয় না। মেকআপ করার কিছুক্ষণ পরই দেখা যায় যে, চোখের নিচে রিংকেল পরে গেছে, আবার অনেক সময় স্মাইল লাইন ফেটে যায় বা নাকের দিকটা কালচে হয়ে যায়, মুখ তৈলাক্ত হয়ে মেকআপ গলে যায়। তাই আজ আপনাদের মেকআপ করার যে কৌশলগুলো বলবো সেগুলো সঠিকভাবে অনুসরণ করলে এই সমস্যাগুলো আর হবে না এবং আপনার মেকআপ হয়ে উঠবে আকর্ষণীয়।

স্টেপ -১:স্ক্র্যাব

প্রথমে কোনো ভালো ব্রান্ডের স্ক্র্যাব দিয়ে পুরো মুখ ভালো করে ৫/৬ মিনিট ম্যাসাজ করে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। তারপর দুটি বরফ নিয়ে পাতলা কোনো পরিষ্কার কাপড়ে পেঁচিয়ে ভালোভাবে কয়েক মিনিট মুখে আলতো করে ঘষে নিন। এতে করে আপনার মুখের অয়লি ভাব চলে যাবে এবং মেকআপ ভালোভাবে বসবে।

স্টেপ ২:সেরাম বা ময়েশ্চারাইজার

এরপর আপনার পছন্দের বা আপনার স্কিনে স্যুট করে এমন কোন ভালোমানের সেরাম বা ময়েশ্চারাইজার আলতো ভাবে পুরো মুখে লাগিয়ে নিন।

স্টেপ ৩ : প্রাইমার

এরপর একটুখানি প্রাইমার হাতে নিয়ে পুরো মুখে ভালোমতো লাগিয়ে নিন। বলা যেতে পারে প্রাইমার মাকআপ এর একটি গুরুত্বপূর্ণ বেসমেন্ট। এটি ছাড়া মেকআপ আপনার মুখে ঠিকভাবে বসবে না। মূলত ভালো মানের প্রাইমার -ই আপনার মেকআপ কে লং লাস্টিং করবে,মুখে পোর থাকলে তা ব্লার করে দিয়ে ত্বকে স্মুথ ভাব নিয়ে আসবে যা আপনার মেকআপ খুব সহজেই বসতে সাহায্য করবে।

স্টেপ ৪ :  কনসিলার

যাদের মুখে দাগ রয়েছে তারা কনসিলার লাগিয়ে নিন। তবে পুরো মুখে লাগানোর দরকার নেই শুধু যে অংশগুলোতে দাগ রয়েছে সেখানে আঙ্গুলের মাথার সাহায্যে লাগিয়ে নিন। বিশেষ করে যাদের চোখের নিচে ডার্ক সার্কেল আছে,তারা চোখের নিচে দিয়ে নিলে চোখ অনেক ব্রাইট লাগবে। এছাড়া মুখের লালচে বা কালচে অংশে ভালো করে লাগিয়ে ব্লেন্ড করে নিন।

স্টেপ ৫ :  ফুল কভারেজ ফাউন্ডেশন

এরপর পার্টি মেকআপ এর জন্য লাগবে ফুল কভারেজ ফাউন্ডেশন তবে এক্ষেত্রে অনেকেই প্যানকেক ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু প্যানকেকের কিছু ক্ষতিকর দিক রয়েছে যা হয়তো অনেকেই জানেন না। প্যানকেক ব্যবহার করলে মেকআপ তোলার পর ফেস কালো ও রুক্ষ হয়ে যায় তাই প্যানকেক ইউস না করে ফুল কভারেজ ফাউন্ডেশন ইউস  করাটাই সবচেয়ে ভালো। কারণ ফাউন্ডেশন ইউস করলে সারাদিন মেকআপ নিয়ে থাকলেও আপনার ফেস মোটেও  কেকি লাগবে না। তবে অবশ্যই ম্যাট ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন তা না হলে মেকআপ গলে যেতে পারে। ফুল কভারেজের জন্য আপনি চাইলে দুটি লেয়ার দিতে পারেন। একবার দিয়ে শুকানোর পর আরেকটি লেয়ার দিন।

তবে হাত দিয়ে কখনোই ফাউন্ডেশন ইউস করবেন না। কারণ হাত ব্যবহার করলে মেকআপ করার কিছুক্ষণ পর ফেস কালো দেখায় তাই অবশ্যই কোনো ব্রাশ বা বিউটি ব্লেন্ডার দিয়ে মেকআপ ইউস  করবেন। কিন্তু বিউটি ব্লেন্ডার দিয়ে ঘষে ঘষে ফাউন্ডেশন লাগাবেন না, অবশ্যই ব্লেন্ডার দিয়ে চেপে চেপে লাগাবেন। এতে করে মেকআপ কেকি দেখাবে না এবং ফাউন্ডেশন ভালো করে ফেস এ মিশে যাবে।

স্টেপ ৬ :  কনট্যুরিং

এখন আসছে কনট্যুরিং এর পালা। আপনার মুখের শেপ বুঝানোর জন্য কনট্যুরিং ইউস করা হয়, যাতে করে আপনার মেকআপ আরো বেশি ফোকাস করে। এক্ষেত্রে আপনি চোখের নিচে,স্মাইল লাইন বা গালে ভালো করে একটি স্টিক দিয়ে ন্যাচারাল শেড লাগিয়ে নিন। যারা নাকটা কে একটু খাড়া করতে চান তারা নাকের ওপরের অংশে লাগাবেন এবং মুখের চারিপাশে এঁকে নেবেন। এরপর বিউটি ব্লেন্ডারটিকে ভালো করে ভিজিয়ে নিয়ে কনট্যুরিং লাইনগুলোকে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। এক্ষেত্রে ব্লেন্ড হতে একটু সময় লাগবে তবে আস্তে আস্তে একটু ধৈর্য ধরে করলেই  ব্লেন্ড হয়ে যাবে। তবে যারা কনট্যুরিং সম্পর্কে তেমন কিছু জানেন না তারা এ স্টেপটি স্কিপ করতে পারেন বা মেকআপ করার আগে বাসায় ইউটিউব দেখে এই স্টেপটি ভালো করে প্র্যাকটিস করে নিবেন।

স্টেপ ৭ :  লুস পাউডার

তারপর ভালো মানের কোনো লুস পাউডার কনট্যুরিং করা স্থানে চেপে বসিয়ে দেবেন। অনেক ভালো মানের লুস পাউডার পাওয়া যায় বাজারে যা সব ধরণের ত্বকের সাথেই মানানসই। স্কিন টাইপ যাই হোক না কেন এটি দিলে মুখ থেকে অয়েল বের হবে না।

স্টেপ ৮ :  ফেস পাউডার

এখন গুরুত্বপূর্ণ স্টেপ হচ্ছে ফেস পাউডার লাগানো এবং এটি অবশ্যই ম্যাট হতে হবে। পুরো ত্বকে ব্রাশ দিয়ে সুন্দর করে ফেস পাউডার লাগিয়ে নিন। লুস পাউডার লাগাবেন শুধুমাত্র কনট্যুরিং করা স্থানে আর ফেস পাউডার লাগাবেন পুরো ত্বকের ফিনিশিং টাচের জন্য।

স্টেপ ৯ :  ব্লাশন

এরপর গালে ব্লাশন লাগিয়ে নিন। এটি ব্যবহার করলে একটা গর্জিয়াস এবং পিঙ্কিশ লুক আসবে।

স্টেপ ১০ :  মেকাপ সেটিংস স্প্রে

সবশেষে ভালো ব্রান্ডের কোনো মেকআপ সেটিংস স্প্রে দিয়ে আপনার পুরো মুখে স্প্রে করে নিন। সেটিংস স্প্রে ইউস করা হয় মেকআপ যাতে না গলে যায় সেজন্য। এটি ইউস করার সময় অবশ্যই চোখ বন্ধ করে রাখবেন এবং একটু দূর থেকে স্প্রে করবেন।

 

অতএব এই ১০টি স্টেপ অনুসরণ করে মেকআপ করলে আপনার মেকআপ মোটেও নষ্ট হবেনা এবং মেকআপ লং লাস্টিং হবে।

 

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: