রাহুলের বিরুদ্বে প্রিয়াংকার অভিযোগ

 

টলিউড  তারকা দম্পতি রাহুল ব্যানার্জী ও প্রিয়াংকা সরকারের মিউচুয়াল ডিভোর্সের কথা শোনা যাচ্ছিল বেশ কিছু ধরে। কিন্তু হঠাৎ করে মিউচুয়াল ডিভোর্সের সিদ্বান্ত প্রত্যাহার করে,কনটেস্টেড ডিভোর্সের সিদ্বান্ত গ্রহন করলেন প্রিয়াংকা।

 

রাহুল তাদের একমাত্র সন্তান সহজের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার জানিয়েছেন। প্রিয়াংকা এ কারনেই তাদের মধ্যে কনটেস্টেড ডিভোর্সের সিদ্বান্ত নিয়েছেন। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো সম্প্রতি এমন তথ্যই প্রকাশ করেছে।

 

কনটেস্টেড ডিভোর্সের ব্যাপারে প্রিয়াংকা বলেন, প্রথম থেকেই আমরা শান্তিপূর্নভাবে বিচ্ছেদ করবো ভেবেছিলাম। এমনটি আমাদের জন্য ও সহজের জন্য ভালো হতো। দুবছরের বেশি সময় ধরে সহজকে নিয়ে আমি আলাদা থাকছি। মিউচুয়াল ডিভোর্সের আবেদনের সময় সহজের দায়িত্ব দু’জনে ভাগ করে নেবার কথা ছিল। কিন্তু  রাহুল এখন সহজের দায়িত্ব কোনভাবেই নিতে চাইছেন না। সহজের কথা বললেই রাহুল এড়িয়ে যাচ্ছেন।

শুধু তাই নয়। এক সাক্ষাৎকারে প্রিয়াঙ্কা বলেন,রাহুল তাকে বিভিন্নভাবে অকেন সময় নির্যাতন করতো। যার কারণে প্রিয়াংকা অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন।

‘সুলতান’খ্যাত অভিনেত্রী প্রিয়াংকা বলেন,রাহুল বিভিন্ন সময়ে নানাভাবে আমাকে শারীরিক, মানসিক নির্যাতন করেছেন। সে বহুবার আমার গায়েও হাত তুলেছেন। কাজের সীমাবদ্বতা ছিলো বহু রকম, যা আমি আগে কখনও বলিনি। রাহুল আমার সঙ্গে কী কী করেছেন, তা সব কিছু আমি প্রকাশ্যে আনতে চাই না। যা কিছু বলেছি তা সহজের ভালোর জন্য।

 

প্রিয়াংকা আরো বলেন, বিচ্ছেদের সময়ে কয়েকজন অভিনেত্রীকে নিয়ে মিডিয়া আমাকে অনেক প্রশ্ন করেছেন। কিন্তু বিচ্ছেদের কারণ সে অভিনেত্রীরা কেউ ছিলেন না। বিচ্ছেদের পরে আমি সেই নামগুলো জেনেছিলাম । আমাদের ডিভোর্সের সিদ্বান্তটি ছিল সম্পূর্ণ অন্য কারন। বহু সম্পর্ক ছাড়াও বিভিন্নভাবে আমাকে ঠকিয়েছেন রাহুল। তার সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল, আমি এব্যাপারে কোন মুখ খুলবো না।

রাজ চক্রবর্তী পরিচালিত ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’ সিনেমার মাধ্যমে টালিউডের যাত্রা শুরু হয়েছিল প্রিয়াংকার। ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’ চলচ্চিত্রটিতে রাহুলের বিপরীতে অভিনয় করে তুমুল সাড়া ফেলেছিলেন তিনি। আর পর্দায় তাদের সেই রসায়ন বাস্তবে রূপ নেয়। দুজনে ভালোবেসে বিয়ের বন্ধনে ঘর বাঁধেন। কিন্তু সেই বন্ধন টিকলো না।

প্রিয়াঙ্কা অভিনীত আরো জনপ্রিয় ছবির গুলোর মধ্যে রয়েছে :

‘এই পৃথিবী তোমার আমার’, ‘যক্ষের ধন’,‘বউ বউ খেলা’, ‘শোন মন বলি তোমায়’,‘রান’ ইত্যাদি। এছাড়া বাংলাদেশের ‘হৃদয় জুড়ে’ নামের একটি ছবিতেও অভিনয় করছেন তিনি।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: